দলে প্রভাব বিস্তার করছেন হেড কোচ হাথুরাসিংহ

72

ক্রিডা প্রতিবেদক:

প্রথম দফায় চন্ডিকা হাথুরুসিংহে যখন বাংলাদেশের প্রধান কোচ ছিলেন তখন থেকে তিনি সব গুরুত্বপূর্ণ কাজ গুলা চালিয়ে যাচ্ছেন কোন জবাবদিহি নাই বিসিবির। এমনকি দল নির্বাচন কিংবা অন্য কোনো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রেও প্রভাব দেখান তিনি।

বছর কয়েকের বিরতির পর আবারও টাইগার ড্রেসিংরুমে ফিরেছেন এই লঙ্কান মাস্টারমাইন্ড। এই সময়ে দলে অনেক পরিবর্তন এসেছে কিন্তু হাথুরুসিংহেকে নিয়ে পুরোনো সেসব অভিযোগ যেন একই থেকেছে।

বারবার খারাপ করা খেলোয়াড়দের সুযোগ দেওয়া ভালো খেলোয়াড়দের এক ম্যাচ খারাপ করলে বিদায় দেওয়া তার কাজ।

কারণ নানা সময়ে দেখা গেছে হাথুরুসিংহে তার পছন্দের ক্রিকেটারদের বার বার সুযোগ দিয়েছেন। যার সর্বশেষ উদাহরণ টি-টুয়ান্টি বিশ্বকাপে সৌম্য সরকারের অন্তর্ভুক্তি। এই পেস বোলিং অলরাউন্ডার সাম্প্রতিক সময়ে খেলা ঘরোয়া ক্রিকেট কিংবা ইমার্জিং এশিয়া কাপে আহামরি কোনো পারফর্ম করতে পারেননি। তারপরও বিশ্বকাপের মত গুরুত্বপূর্ণ আসরে দলে ডাকা হয় তাকে। সুযোগ পান একাদশেও। নিউজিল্যান্ড সিরিজে পুরোপুরি ব্যর্থ হওয়ার পরেও তাজে দলে অন্তর্ভুক্তি করা হয়।

দলে অন্তর্ভুক্তি বা দল থেকে বাদ পরা যেন তার কাজ। বাংলাদেশ দলে তাকে দেখা যায় সব গুরুত্বপূর্ণ কাজ গুলো করতে তবে কেন রাখা হয়েছে নির্বাচক প্যানেলকে।

দলে সৌম্য ও লিটন শত শত ম্যাচ খারাপ করার পরেও তাদের যায়গা পাকাপোক্ত আর এনামুল হক বিজয় রনি তালুকদার দলে থাকলেও যায়গা হয়না একাদশে শেষ ম্যাচে সুযোগ হলে ভালো করতে না পারলে বাদ।

দর্শকরা বলেন,আমাদের কাছে একটা প্রশ্ন কেন এত টাকা খরচ করে বাংলাদেশ দলে নির্বচক প্যানেল থেকে শুরু করে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়ার জন্য বিভিন্ন লোক নিয়োগ দেওয়া হয় সব দায়িত্ব হেড কোচ যেহেতু করতেছেন। বিশ্বকাপে এ ভরাডুবির জবাবদিহি কে করবে।