বিএফসিএস সিইউ লাইভ অনুষ্ঠানে কথাসাহিত্যিক কিঙ্কর আহ্সান

669
চবি প্রতিনিধিঃ
 
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বায়োলজি ফ্যাকাল্টি কো-কারিকুলার সোসাইটি(বিএফসিএস) আয়োজিত লাইভ অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক কিঙ্কর আহ্সান।
 
গত বৃহস্পতিবার(২০আগস্ট) লাইভ বিএফসিএস সিইউ আয়োজিত লাইভ অনুষ্ঠানে কিঙ্কর আহ্সান শুনিয়েছেন তাঁর জীবনের গল্প।
 
বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদেরকে কোনকিছুতে হাল না ছেড়ে নিজের স্বপ্ন, প্যাশন বা ইচ্ছাগুলো আরো শক্ত করে আঁকড়ে ধরার জন্য অনুপ্রাণিত করা। যেজন্য কথাসাহিত্যিক কিঙ্কর আহ্সানকে আমন্ত্রণ জানানো। তিনি শুনিয়েছেন তাঁর জীবনের গল্প। একজন সাধারণ মানুষ থেকে একজন সফল লেখক হয়ে ওঠার গল্প। পরামর্শ দিয়েছেন কীভাবে আমরাও হয়ে উঠতে পারি নিজ নিজ ক্ষেত্রে অনন্য।
 
এসময় তিনি বলেন কীভাবে তিনি চারপাশের এত এত মানুষের কথার পাশ কাটিয়ে অন্যরকম একটা জীবন বেছে নিয়ে সফল হয়েছেন, কীভাবে তিনি প্রতিটা দিন যুদ্ধ করে গিয়েছেন নিজের সাথে, চারপাশের সাথে। কীভাবে একটু একটু করে সাফল্যকে ছুঁতে পেরেছেন তিনি।
 
একপর্যায়ে সাফল্যের গল্প করতে গিয়ে তিনি বলেন, “সেদিন অমর একুশে গ্রন্থমেলার শেষ দিন। প্রকাশক আমাকে কল করলেন, কিঙ্কর ভাই আপনি আসেন মেলায়। পাঠকরা আপানাকে চাচ্ছে। সেদিন সন্ধ্যাবেলা আমি স্টলে বসে অটোগ্রাফ দিচ্ছি। এমন সময় শুরু হলো লোডশেডিং। পুরো মেলায় ঘুটঘুটে অন্ধকার। আমার সামনে পাঠকদের লম্বা লাইন। সেই সময় অন্ধকারে আমি কিছু দেখছি না। আস্তে আস্তে পাঁচটা, দশটা, বিশটা করে অনেকগুলো ফ্ল্যাশলাইট জ্বলে উঠলো৷ সবাই বলছে, কিঙ্কর ভাই আপনি অটোগ্রাফ দিতে থাকেন। অনেক বই আছে আরো। আমরা সবাই আপনার সাথে আছি। পাঠকদের এত এত ভালোবাসার কারণেই আমি আজকের কিঙ্করা আহ্সান।” কিঙ্কর আহ্সান সবাইকে বই পড়তে বলেন। যতটা সম্ভব জ্ঞান সংগ্রহ করতে বলেন। শিক্ষার্থীরা যারা স্বপ্ন দেখে, কিছু করতে চায় তাদের প্রতি দিকনির্দেশনামূলক কথা বলেন।
 
বিএফসিএস সিইউ এর প্রতিষ্ঠাতা ও আহ্বায়ক শাহরিয়ার জাওয়াদ বলেন,”মূলত শিক্ষার্থীদের মাঝে হাল না ছাড়ার অনুপ্রেরণা সৃষ্টির জন্য আমাদের এই লাইভ অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নেওয়া। জীবনটাকে গতানুগতিকের চেয়ে একটু অন্যভাবে দেখার অনুপ্রেরণা সৃষ্টির জন্য এই অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নেওয়া। প্রিয় কিঙ্কর ভাইয়ার জীবনের গল্প, দিকনির্দেশনামূলক কথাগুলো আমাদেরকে অনুপ্রাণিত করেছে। নিজ নিজ প্যাশনের জায়গাগুলো এবং স্বপ্নকে হাল না ছেড়ে আরো শক্ত করে আঁকড়ে ধরতে অনুপ্রাণিত করেছে।”
 
এমডি/এফএম/বাংলাধারা